সব ঠিক থাকার পরও যে কারণে যুক্তরাষ্ট্রে গেলেন না কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার কথা ছিল।  সবকিছু ঠিকঠাক।  বৃহস্পতিবার ভোর ৪ টায় তার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে আমেরিকার উদ্দেশে উড়াল দেওয়ার কথা ছিল।

বিমানের শিডিউল মোতাবেক বিমানবন্দরেও গিয়েছিলেন কাদের মির্জা।  কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিনি মত পাল্টান।  ফিরে আসেন বিমানবন্দর থেকে।

তার বিমানবন্দর থেকে ফিরে আসার খবরে কেৌতুহল সৃষ্টি হয়।  কী কারণে সব ঠিকঠাক থাকার পরও কাদের মির্জা বিদেশে গেলেন না, সেটি নিয়ে ধোয়াশার সৃষ্টি হয়েছে।

তবে কাদের মির্জা জানিয়েছেন, নিজের অনুসারীদের `নিরাপত্তার’ কথা চিন্তা করে তিনি আমেরিকা সফর বাতিল করেছেন।

বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৪টায় ছেলে মির্জা মাশরুর কাদের তাশিককে নিয়ে আমেরিকার উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করার কথা ছিল তার।

বুধবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাদের মির্জার অনুসারী আমেরিকা প্রবাসী আইয়ুব আলী।  তারও মেয়রের সঙ্গে আমেরিকায় যাওয়ার কথা ছিল।

আইয়ুব আলী বলেন, বুধবার সন্ধ্যায় মেয়র চিকিৎসার জন্য আমেরিকার উদ্দেশে বিমানবন্দরে যাওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার সময় জানতে পারেন তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা বৈঠক করে হামলার পরিকল্পনা করছেন।

বিষয়টি জানার পর নিজের অনুসারীদের নিরাপত্তার বিষয়টি চিন্তা করে বিদেশ যাওয়া বাতিল করে সফরসঙ্গী ও অনুসারীদের নিয়ে বসুরহাট রওনা দেন।  রাত পৌনে ২টার দিকে পৌরসভা কার্যালয়ে পৌঁছান কাদের মির্জা।

এর আগে বড়ভাই সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরামর্শে চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন মেয়র আবদুল কাদের মির্জা।

এজন্য মঙ্গলবার ভোরে মা-বাবার কবর জিয়ারত করে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে কোম্পানীগঞ্জ ছাড়েন তিনি।

নোয়াখালী ও ফেনীতে আওয়ামী লীগ দ্বিধাবিভক্ত।  দ্বন্দ্বের জেরে দুপক্ষের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষ হয়েছে।  আবদুল কাদের মির্জার অভিযোগ, প্রতিপক্ষ গ্রুপ তার নেতাকর্মীদের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে।  তার অনেক কর্মীকে আটকও রাখা হয়েছে।

মন্তব্যর উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন