ঢাকা ০৭:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাসের কাচ ভেঙে স্পেশাল ব্রাঞ্চের রিপোর্টারের মৃত্যু

রাজধানীর বকশিবাজারে বাসের কাচ ভেঙে পেছনের সিটে বসা তোফাজ্জল হোসেন (৪০) নামে এক যাত্রী মারা গেছেন। তিনি পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রক্তাক্ত অবস্থায় পথচারীরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক সন্ধ্যা ৬টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা মুশফিকুর রহমান নামে এক যুবক জানান, ঠিকানা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের যাত্রী ছিলেন তোফাজ্জল। বাসের পেছনের সিটে বসা ছিলেন তিনি।

তিনি আরও জানান, বকশিবাজার মোড় দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় পাশের একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বাসের পেছনের অংশের ধাক্কা লাগে। এতে বাসের জানালার কাচ ভেঙে তোফাজ্জলের ওপর পড়ে। তোফাজ্জলের মুখমণ্ডল ও শরীর

থেকে রক্ত ঝরতে থাকে। দেখতে পেয়ে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

বাসের কাচ ভেঙে স্পেশাল ব্রাঞ্চের রিপোর্টারের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৭:৪২:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

রাজধানীর বকশিবাজারে বাসের কাচ ভেঙে পেছনের সিটে বসা তোফাজ্জল হোসেন (৪০) নামে এক যাত্রী মারা গেছেন। তিনি পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

শুক্রবার (২৯ মার্চ) বিকেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রক্তাক্ত অবস্থায় পথচারীরা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক সন্ধ্যা ৬টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা মুশফিকুর রহমান নামে এক যুবক জানান, ঠিকানা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের যাত্রী ছিলেন তোফাজ্জল। বাসের পেছনের সিটে বসা ছিলেন তিনি।

তিনি আরও জানান, বকশিবাজার মোড় দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় পাশের একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বাসের পেছনের অংশের ধাক্কা লাগে। এতে বাসের জানালার কাচ ভেঙে তোফাজ্জলের ওপর পড়ে। তোফাজ্জলের মুখমণ্ডল ও শরীর

থেকে রক্ত ঝরতে থাকে। দেখতে পেয়ে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) মো. বাচ্চু মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।