ঢাকা ১১:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই: ডিএমপি কমিশনার

আগামীকাল রোববার (১৪ এপ্রিল) রাজধানীর রমনায় পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখ বাঙালি জাতির অসম্প্রদায়িক চেতনার বহিঃপ্রকাশ। সেজন্য এটার ওপর বারবার আঘাত এসেছে। সহিংস হামলা হয়েছে, জঙ্গি হামলা হয়েছে। সেজন্য সবকিছু মাথায় রেখেই ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা পরিকল্পনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদিও এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট হামলার শঙ্কা আমার কাছে নেই। আমরা সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করি।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বেলা ১১টায় রমনা পার্কে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান বলেন, রমনা বটমূলে আগামীকাল বিকেল ৫টার পর্যন্ত প্রবেশ করা যাবে। এরপর আর কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না। এবং সন্ধ্যার আগে সবাইকে অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে হবে।

দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ডিএমপি যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জানিয়ে হাবিবুর রহমান বলেন, রমনায় টুরিস্টদের অভ্যর্থনা জানানোর জন্য টুরিস্ট পুলিশ বুথ রয়েছে। লেক এলাকা নিরাপত্তা দিতে নৌপুলিশের টহল রয়েছে। এছাড়া ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সাময়িক মেডিকেল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। রক্তদানের ব্যবস্থা আছে। বিনামূল্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে সুপেয় পানি বিতরণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

আজ বিকেল থেকে রমনা এলাকায় কিছু কিছু রোডে ডাইভারশন দেওয়া হবে জানিয়ে হাবিবুর রহমান বলেন, যারা গাড়ি চালাবেন তাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে- পুলিশকে সহযোগিতা করবেন; নির্দেশনা মেনে চলবেন। আর দর্শনার্থীদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি আমাদের প্রত্যেকটি নিরাপত্তা ফটকের তল্লাশি করা হবে। প্রত্যেকটি পয়েন্টের সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া বোম ডিস্পোজাল ইউনিট স্ট্যান্ডবাই থাকবে। তারা ইতিমধ্যে মহড়া করেছে।

পহেলা বৈশাখে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই: ডিএমপি কমিশনার

আপডেট সময় : ১২:০৭:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

আগামীকাল রোববার (১৪ এপ্রিল) রাজধানীর রমনায় পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, পহেলা বৈশাখ বাঙালি জাতির অসম্প্রদায়িক চেতনার বহিঃপ্রকাশ। সেজন্য এটার ওপর বারবার আঘাত এসেছে। সহিংস হামলা হয়েছে, জঙ্গি হামলা হয়েছে। সেজন্য সবকিছু মাথায় রেখেই ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা পরিকল্পনার ব্যবস্থা করা হয়েছে। যদিও এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট হামলার শঙ্কা আমার কাছে নেই। আমরা সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করি।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বেলা ১১টায় রমনা পার্কে পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান বলেন, রমনা বটমূলে আগামীকাল বিকেল ৫টার পর্যন্ত প্রবেশ করা যাবে। এরপর আর কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না। এবং সন্ধ্যার আগে সবাইকে অনুষ্ঠান সম্পন্ন করতে হবে।

দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ডিএমপি যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে জানিয়ে হাবিবুর রহমান বলেন, রমনায় টুরিস্টদের অভ্যর্থনা জানানোর জন্য টুরিস্ট পুলিশ বুথ রয়েছে। লেক এলাকা নিরাপত্তা দিতে নৌপুলিশের টহল রয়েছে। এছাড়া ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে সাময়িক মেডিকেল সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। রক্তদানের ব্যবস্থা আছে। বিনামূল্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে সুপেয় পানি বিতরণের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

আজ বিকেল থেকে রমনা এলাকায় কিছু কিছু রোডে ডাইভারশন দেওয়া হবে জানিয়ে হাবিবুর রহমান বলেন, যারা গাড়ি চালাবেন তাদের প্রতি অনুরোধ থাকবে- পুলিশকে সহযোগিতা করবেন; নির্দেশনা মেনে চলবেন। আর দর্শনার্থীদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি আমাদের প্রত্যেকটি নিরাপত্তা ফটকের তল্লাশি করা হবে। প্রত্যেকটি পয়েন্টের সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। ওয়াচ টাওয়ার নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া বোম ডিস্পোজাল ইউনিট স্ট্যান্ডবাই থাকবে। তারা ইতিমধ্যে মহড়া করেছে।