ঢাকা ০২:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সম্পত্তি না পেয়ে মাকে হত্যার চেষ্টায় দুই ছেলে কারাগারে

সম্পত্তি না পেয়ে চট্টগ্রামে মাকে হত্যার চেষ্টায় দুই ছেলেকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শনিবার (৩০ মার্চ) সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ড. আজিজ আহমেদ ভূঁঞার আদালত এ নির্দেশ দেন।
কারাগারে যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন সুমন বড়ুয়া (৪২) ও অনুপম বড়ুয়া (৪০)।

তাদের মা মিনু রানী বড়ুয়ার দায়েরকৃত মামলায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আত্মসমর্পণ করলে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।
মামলা সূত্রে জানা যায়, মিনু রানীর স্বামী মার্স কর্পোরেশন নামে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের মালিক। তিনি বিভিন্ন জায়গায় নিজের এবং স্ত্রীর নামে সম্পত্তি কিনেন। তাদের ছয়তলা একটি বাড়ি রয়েছে। স্বামী মারা যাওয়ার পর মিনু রানীর ছেলেরা

সম্পত্তি বিক্রি করে তাদেরকে টাকা দেয়ার জন্য বার বার জোর করতে থাকে। এতে মিনু অপারগতা প্রকাশ করলে ২০২৩ সালে তাকে মারধর করে গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করে ছেলেরা। পরে গত বছরের ৩ ডিসেম্বর আদালতে মামলা করেন মিনু।

আদালত মামলা আমলে নিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আসামিরা সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি আত্মসমর্পণ করলে তাদেরকে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করার শর্তে আগাম জামিন দেন।

এই নির্দেশনা অনুযায়ী আত্মসমর্পণ করলে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

সম্পত্তি না পেয়ে মাকে হত্যার চেষ্টায় দুই ছেলে কারাগারে

আপডেট সময় : ০১:৩২:৩৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ এপ্রিল ২০২৪

সম্পত্তি না পেয়ে চট্টগ্রামে মাকে হত্যার চেষ্টায় দুই ছেলেকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। শনিবার (৩০ মার্চ) সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ ড. আজিজ আহমেদ ভূঁঞার আদালত এ নির্দেশ দেন।
কারাগারে যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন সুমন বড়ুয়া (৪২) ও অনুপম বড়ুয়া (৪০)।

তাদের মা মিনু রানী বড়ুয়ার দায়েরকৃত মামলায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আত্মসমর্পণ করলে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।
মামলা সূত্রে জানা যায়, মিনু রানীর স্বামী মার্স কর্পোরেশন নামে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের মালিক। তিনি বিভিন্ন জায়গায় নিজের এবং স্ত্রীর নামে সম্পত্তি কিনেন। তাদের ছয়তলা একটি বাড়ি রয়েছে। স্বামী মারা যাওয়ার পর মিনু রানীর ছেলেরা

সম্পত্তি বিক্রি করে তাদেরকে টাকা দেয়ার জন্য বার বার জোর করতে থাকে। এতে মিনু অপারগতা প্রকাশ করলে ২০২৩ সালে তাকে মারধর করে গলাটিপে হত্যার চেষ্টা করে ছেলেরা। পরে গত বছরের ৩ ডিসেম্বর আদালতে মামলা করেন মিনু।

আদালত মামলা আমলে নিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে আসামিরা সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি আত্মসমর্পণ করলে তাদেরকে সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করার শর্তে আগাম জামিন দেন।

এই নির্দেশনা অনুযায়ী আত্মসমর্পণ করলে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।