ঢাকা ০১:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চেতনানাশক খাইয়ে ইউপি সদস্যের টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

বরগুনার তালতলী উপজেলায় সাবেক নারী ইউপি সদস্য ও তার স্বামীকে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে অচেতন করে টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করেছে দুর্বৃত্তরা।
সোমবার ( ১ এপ্রিল) ভোর রাতে উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নারী ইউপি সদস্য সেলিনা আক্তার ইভা বড়বগী ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সাবেক নারী ইউপি সদস্য ও নয়াপাড়া গ্রামের জাফরুল্লাহ বাচ্চুর স্ত্রী।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বড়বগী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক নারী ইউপি সদস্য সেলিনা আক্তার ইভা ও স্বামী জাফরুল্লাহ বাচ্চু গতকাল রবিবার রাতে ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন সকালে ওই পরিবারের লোকজনের ঘুম ভাঙতে দেরি দেখে প্রতিবেশীরা ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে ঘরের পিছনের দরজায় যায়।
এরপর ঘরের পিছনের দরজা ভাঙা দেখে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে তাদের অচেতন অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন এবং ঘরের জিনিসপত্র এলোমেলো হয়ে রয়েছে। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক।
বড়বগী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য, শহিদুল ইসলাম বলেন, সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ঘরের দরজা ভাঙা এবং জিনিসপত্র এলোমেলো অবস্থায় দেখেছি। তবে কি পরিমাণ টাকা-পয়সা ও স্বর্ণালংকার লুট হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।
তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ওই ইউপি সদস্যের বাড়ি পরিদর্শন করেছি। ধারণা করা হচ্ছে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক খাওয়ানোর কারণে অচেতন হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চেতনানাশক খাইয়ে ইউপি সদস্যের টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট

আপডেট সময় : ১১:০২:২৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪
বরগুনার তালতলী উপজেলায় সাবেক নারী ইউপি সদস্য ও তার স্বামীকে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে অচেতন করে টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করেছে দুর্বৃত্তরা।
সোমবার ( ১ এপ্রিল) ভোর রাতে উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নারী ইউপি সদস্য সেলিনা আক্তার ইভা বড়বগী ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সাবেক নারী ইউপি সদস্য ও নয়াপাড়া গ্রামের জাফরুল্লাহ বাচ্চুর স্ত্রী।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বড়বগী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক নারী ইউপি সদস্য সেলিনা আক্তার ইভা ও স্বামী জাফরুল্লাহ বাচ্চু গতকাল রবিবার রাতে ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন সকালে ওই পরিবারের লোকজনের ঘুম ভাঙতে দেরি দেখে প্রতিবেশীরা ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে ঘরের পিছনের দরজায় যায়।
এরপর ঘরের পিছনের দরজা ভাঙা দেখে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে তাদের অচেতন অবস্থায় মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন এবং ঘরের জিনিসপত্র এলোমেলো হয়ে রয়েছে। পরে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক।
বড়বগী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ইউপি সদস্য, শহিদুল ইসলাম বলেন, সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে ঘরের দরজা ভাঙা এবং জিনিসপত্র এলোমেলো অবস্থায় দেখেছি। তবে কি পরিমাণ টাকা-পয়সা ও স্বর্ণালংকার লুট হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি।
তালতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ওই ইউপি সদস্যের বাড়ি পরিদর্শন করেছি। ধারণা করা হচ্ছে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক খাওয়ানোর কারণে অচেতন হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।