ঢাকা ১১:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে প্রার্থীর অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাচনে আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগ এনে নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার (১৩ মে) নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহজালাল মিয়া নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বরাবর এই লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে মো. শাহজালাল মিয়া উল্লেখ করেন, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবু উপজেলা নির্বাচনের আচরণবিধির বিন্দুমাত্র তোয়াক্কা না করে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নিজেই একজন পছন্দের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন। সেইসঙ্গে জনসাধারণকে হুকুম দিচ্ছেন তার প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপনকে যেকোনো মূল্যে পাস করাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, হুইপ বাবু ‘ক্ষমতা, অর্থকড়িসহ সকল প্রশাসন আমি দেখবো’ বলে তার ক্ষমতা ব্যবহার করে প্রকাশ্যে তার চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলামের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার- প্রচারণা করে যাচ্ছেন। আমার কর্মী সমর্থককে বিরতিহীনভাবে হুমকি, ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যাচ্ছে। এতে করে আমার নির্বাচনী প্রচারণায় বাধার সৃষ্টি হচ্ছে।

শাহজালাল মিয়া আরও উল্লেখ করেন, হুইপ নজরুল ইসলাম বাবু আমার সম্ভাব্য এজেন্টদের হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। অকথ্য ভাষায় আমাকে গালাগাল করছেন। প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন আমার নেতাকর্মী ও সম্ভাব্য এজেন্টদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। এতে করে অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে।

অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে মো. শাহজালাল মিয়া  বলেন, আমি নির্বাচন কমিশনে জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছি। তিনি নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আমি চাই নির্বাচন যেন সুষ্ঠু হয়।

আগামী ২১ মে দ্বিতীয় ধাপে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাইফুল ইসলাম স্বপন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজালাল মিয়া ও কাজী সুজন ইকবাল। তাদের মধ্য থেকে সাইফুল ইসলাম স্বপনের পক্ষ নিয়ে নির্বাচনী বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার অভিযাগ করা হচ্ছে নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে।

তবে একজনের পক্ষে কাজ করার বিষয়টি অস্বীকার করে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম ওরফে বাবু বলেন, নির্বাচনে আমার কোনো প্রার্থী নেই। নির্বাচনে যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সকলেই আমার লোক। যারা আমার বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ করছেন তাদের অভিযোগ সত্য নয়। আমি কোনো প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে প্রশাসন বদ্ধপরিকর। নির্বাচনে কোনো প্রার্থী প্রভাব বিস্তার করতে পারবে না। সকলকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলতে হবে। যদি কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করার কিংবা ভোটের দিন নির্বাচনে কোনো প্রভাব খাটিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চান তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে প্রার্থীর অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৩:৫৭:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাচনে আচরণবিধি লংঘনের অভিযোগ এনে নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার (১৩ মে) নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহজালাল মিয়া নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বরাবর এই লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে মো. শাহজালাল মিয়া উল্লেখ করেন, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবু উপজেলা নির্বাচনের আচরণবিধির বিন্দুমাত্র তোয়াক্কা না করে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নিজেই একজন পছন্দের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন। সেইসঙ্গে জনসাধারণকে হুকুম দিচ্ছেন তার প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপনকে যেকোনো মূল্যে পাস করাতে হবে।

তিনি আরও বলেন, হুইপ বাবু ‘ক্ষমতা, অর্থকড়িসহ সকল প্রশাসন আমি দেখবো’ বলে তার ক্ষমতা ব্যবহার করে প্রকাশ্যে তার চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলামের পক্ষে নির্বাচনী প্রচার- প্রচারণা করে যাচ্ছেন। আমার কর্মী সমর্থককে বিরতিহীনভাবে হুমকি, ভয়ভীতি প্রদর্শন করে যাচ্ছে। এতে করে আমার নির্বাচনী প্রচারণায় বাধার সৃষ্টি হচ্ছে।

শাহজালাল মিয়া আরও উল্লেখ করেন, হুইপ নজরুল ইসলাম বাবু আমার সম্ভাব্য এজেন্টদের হুমকি ধামকি দিচ্ছেন। অকথ্য ভাষায় আমাকে গালাগাল করছেন। প্রার্থী সাইফুল ইসলাম স্বপন আমার নেতাকর্মী ও সম্ভাব্য এজেন্টদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন। এতে করে অবাধ, নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানে বাধা সৃষ্টি হচ্ছে।

অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে মো. শাহজালাল মিয়া  বলেন, আমি নির্বাচন কমিশনে জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছি। তিনি নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আমি চাই নির্বাচন যেন সুষ্ঠু হয়।

আগামী ২১ মে দ্বিতীয় ধাপে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাইফুল ইসলাম স্বপন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজালাল মিয়া ও কাজী সুজন ইকবাল। তাদের মধ্য থেকে সাইফুল ইসলাম স্বপনের পক্ষ নিয়ে নির্বাচনী বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার অভিযাগ করা হচ্ছে নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে।

তবে একজনের পক্ষে কাজ করার বিষয়টি অস্বীকার করে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ নজরুল ইসলাম ওরফে বাবু বলেন, নির্বাচনে আমার কোনো প্রার্থী নেই। নির্বাচনে যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সকলেই আমার লোক। যারা আমার বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ করছেন তাদের অভিযোগ সত্য নয়। আমি কোনো প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিচ্ছি না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে প্রশাসন বদ্ধপরিকর। নির্বাচনে কোনো প্রার্থী প্রভাব বিস্তার করতে পারবে না। সকলকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলতে হবে। যদি কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গ করার কিংবা ভোটের দিন নির্বাচনে কোনো প্রভাব খাটিয়ে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চান তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।