ঢাকা ০৭:০৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডাকাতির সময় মূল্যবান জিনিসপত্র না পেয়ে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ডাকাতির সময় মূল্যবান জিনিস না পাওয়ায় কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। আজ সোমবার (২০ মে) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার আরাফাত ইসলাম এ তথ্য জানান।

গতকাল রোববার (১৯ মে) রাতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১১ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন—আব্দুল্লাহ (২৪), তার সহযোগী মতিন (৩৫), চাঁন মিয়া (২৮) ও আয়নাল (২৫)। এ সময় ভুক্তভোগীর মোবাইলফোনসহ একটি দেশীয় ওয়ান শুটার গান, একটি শাবল, একটি দা, দুটি রামদা ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সিএনজি উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, এই চক্রটি সংঘবদ্ধ ডাকাতচক্র। তারা দিনের বেলায় বিভিন্ন পেশায় থেকে নির্দিষ্ট বাড়ি রেকি করেন। পরে সুযোগ বুঝে ওসব বাড়িতে ডাকাতি করত। গত দুই বছর ধরে এই চক্রটি বিভিন্ন বাসা বাড়িতে ডাকাতি করে আসছিল। তারা কোনো মূল্যবান জিনিসপত্র না পেলে ধর্ষণ-খুনসহ বাসাবাড়ির মূল্যবান জিনিসপত্র নষ্ট করত।

আরাফাত ইসলাম বলেন, গত ১৫ মে রাত আড়াইটায় নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় ডাকাতির সময় কোনো মূল্যবান জিনিসপত্র না পেয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে। ওই ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আড়াইহাজার থানায় মামলা করে। পরে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই গণধর্ষণের সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেন।

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

ডাকাতির সময় মূল্যবান জিনিসপত্র না পেয়ে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

আপডেট সময় : ০৯:১১:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ডাকাতির সময় মূল্যবান জিনিস না পাওয়ায় কিশোরীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। আজ সোমবার (২০ মে) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার আরাফাত ইসলাম এ তথ্য জানান।

গতকাল রোববার (১৯ মে) রাতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় র‌্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখা ও র‌্যাব-১১ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন—আব্দুল্লাহ (২৪), তার সহযোগী মতিন (৩৫), চাঁন মিয়া (২৮) ও আয়নাল (২৫)। এ সময় ভুক্তভোগীর মোবাইলফোনসহ একটি দেশীয় ওয়ান শুটার গান, একটি শাবল, একটি দা, দুটি রামদা ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সিএনজি উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, এই চক্রটি সংঘবদ্ধ ডাকাতচক্র। তারা দিনের বেলায় বিভিন্ন পেশায় থেকে নির্দিষ্ট বাড়ি রেকি করেন। পরে সুযোগ বুঝে ওসব বাড়িতে ডাকাতি করত। গত দুই বছর ধরে এই চক্রটি বিভিন্ন বাসা বাড়িতে ডাকাতি করে আসছিল। তারা কোনো মূল্যবান জিনিসপত্র না পেলে ধর্ষণ-খুনসহ বাসাবাড়ির মূল্যবান জিনিসপত্র নষ্ট করত।

আরাফাত ইসলাম বলেন, গত ১৫ মে রাত আড়াইটায় নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার এলাকায় ডাকাতির সময় কোনো মূল্যবান জিনিসপত্র না পেয়ে ১৭ বছরের এক কিশোরীকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে। ওই ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আড়াইহাজার থানায় মামলা করে। পরে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই গণধর্ষণের সঙ্গে তাদের সম্পৃক্ততার বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেন।