ঢাকা ১০:৫৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাভারে নারী পাচারচক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

ঢাকার সাভারে তিন তরুণীকে চাকরী দেয়ার নাম করে যৌনপল্লীতে পাচারকালে ৫ নারী পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে সাভার মডেল থানা পুলিশ। এসময় ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন সাভারের আমিনবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন ওর রশিদ। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে সাভারের ভরারী এলাকার স্থানীয় পোড়া বাবুলের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

 

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন—মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার গুয়াতলা গ্রামের মৃত এরফান ব্যাপারীর ছেলে খলিল ব্যাপারী (৪২), একই এলাকার আব্দুল আজিজের মেয়ে ও খলিল ব্যাপারীর স্ত্রী লাইলী বেগম (৩৫) ও বরিশাল জেলার উজিরপুর থানার বড়কোঠা গ্রামের মো. জালাল শরিফের মেয়ে তানজিলা আক্তার ফাতেমা (২৫), টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি গ্রামের সিংগাইর গ্রামের মৃত ফটিক মিয়ার ছেলে মো. নজরুল ইসলাম (৩৯) ও সাভারের ভরারী বটতলা এরাকার মো. শরিফ মিয়ার মেয়ে ও স্থানীয় নজরুর ইসলামের স্ত্রী মিথিলা আক্তার (২০)। তারা সবাই সাভারের ভরারী এলাকায় ভাড়া থেকে নারী পাচার চক্রের সাথে জড়িত ছিলো।

আমিনবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন ওর রশিদ ঢাকা মেইলকে বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সাভারের ভরারী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নারী পাচার চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে তিনজন ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরো জানান, অভিযুক্তরা চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অসহায় নারীদের প্রথমে একটি ফ্ল্যাটে আটকে রেখে অসামাজিক কার্যকলাপে বাধ্য করতো। এর কিছুদিন পরে তাদের রাজবাড়ির দৌলদিয়া, টাংগাইল ও ময়মনসিংহ এলাকায় বিভিন্ন যৌনপল্লীতে বিক্রি করে দিত। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা আছে।

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

সাভারে নারী পাচারচক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

আপডেট সময় : ০৭:৪২:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

ঢাকার সাভারে তিন তরুণীকে চাকরী দেয়ার নাম করে যৌনপল্লীতে পাচারকালে ৫ নারী পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে সাভার মডেল থানা পুলিশ। এসময় ভুক্তভোগীদের উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন সাভারের আমিনবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন ওর রশিদ। এর আগে বুধবার দিবাগত রাতে সাভারের ভরারী এলাকার স্থানীয় পোড়া বাবুলের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

 

গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন—মাদারীপুর জেলার শিবচর থানার গুয়াতলা গ্রামের মৃত এরফান ব্যাপারীর ছেলে খলিল ব্যাপারী (৪২), একই এলাকার আব্দুল আজিজের মেয়ে ও খলিল ব্যাপারীর স্ত্রী লাইলী বেগম (৩৫) ও বরিশাল জেলার উজিরপুর থানার বড়কোঠা গ্রামের মো. জালাল শরিফের মেয়ে তানজিলা আক্তার ফাতেমা (২৫), টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি গ্রামের সিংগাইর গ্রামের মৃত ফটিক মিয়ার ছেলে মো. নজরুল ইসলাম (৩৯) ও সাভারের ভরারী বটতলা এরাকার মো. শরিফ মিয়ার মেয়ে ও স্থানীয় নজরুর ইসলামের স্ত্রী মিথিলা আক্তার (২০)। তারা সবাই সাভারের ভরারী এলাকায় ভাড়া থেকে নারী পাচার চক্রের সাথে জড়িত ছিলো।

আমিনবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন ওর রশিদ ঢাকা মেইলকে বলেন, গোপন তথ্যের ভিত্তিতে সাভারের ভরারী এলাকায় অভিযান চালিয়ে নারী পাচার চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে তিনজন ভুক্তভোগী তরুণীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা আরো জানান, অভিযুক্তরা চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অসহায় নারীদের প্রথমে একটি ফ্ল্যাটে আটকে রেখে অসামাজিক কার্যকলাপে বাধ্য করতো। এর কিছুদিন পরে তাদের রাজবাড়ির দৌলদিয়া, টাংগাইল ও ময়মনসিংহ এলাকায় বিভিন্ন যৌনপল্লীতে বিক্রি করে দিত। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা আছে।