ঢাকা ০৬:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাসপোর্ট জালিয়াতি: মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

মালয়েশিয়ায় পাসপোর্ট জালিয়াতিতে সম্পৃক্ত একটি চক্রের সন্ধান পেয়েছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। শুক্রবার ওই চক্রের ‘মূল হোতা’ এক বাংলাদেশিসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে অভিবাসন বিভাগ। মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম দ্য স্টার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সোমবার (১৩ মে) মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক রুসলিন জউশ বলেন, গত শুক্রবার কাজাংয়ে অভিযান চালিয়ে চক্রটির মূল হোতা ‘অপু ভাই’ (৩৮) নামে পরিচিত এক বাংলাদেশিসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া এক ফিলিপিনো নারীকে (৪০) গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যাকে ‘অপু ভাইয়ের’ সহকারী বলে মনে করা হচ্ছে।

গ্রেপ্তার দুজন দুই বছরের মতো এই জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুজনকেই ১৪ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। এই জালিয়াত সিন্ডিকেটের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে আরও তদন্ত করা হবে।

অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক জানান, অভিযান চালানোর সময় বেশ কয়েকজন বিদেশি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে জানা যায়, তারা চক্রটির কাছ থেকে জাল পাসপোর্ট কিনেছিলেন।

রুসলিন জউশ আরও জানান, চক্রটি পাসপোর্টের পুরোনো সংস্করণ ব্যবহার করতো। ফলে এগুলোতে পাতা পরিবর্তন করা সহজ। একটি পাসপোর্ট জালিয়াতি করতে এক থেকে দেড় হাজার রিঙ্গিত খরচ হতো বলে তিনি জানান।

 

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

পাসপোর্ট জালিয়াতি: মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

আপডেট সময় : ১২:৩৪:৩৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

মালয়েশিয়ায় পাসপোর্ট জালিয়াতিতে সম্পৃক্ত একটি চক্রের সন্ধান পেয়েছে দেশটির অভিবাসন বিভাগ। শুক্রবার ওই চক্রের ‘মূল হোতা’ এক বাংলাদেশিসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে অভিবাসন বিভাগ। মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম দ্য স্টার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

সোমবার (১৩ মে) মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক রুসলিন জউশ বলেন, গত শুক্রবার কাজাংয়ে অভিযান চালিয়ে চক্রটির মূল হোতা ‘অপু ভাই’ (৩৮) নামে পরিচিত এক বাংলাদেশিসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া এক ফিলিপিনো নারীকে (৪০) গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যাকে ‘অপু ভাইয়ের’ সহকারী বলে মনে করা হচ্ছে।

গ্রেপ্তার দুজন দুই বছরের মতো এই জালিয়াতির সঙ্গে যুক্ত বলে ধারণা করা হচ্ছে। দুজনকেই ১৪ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। এই জালিয়াত সিন্ডিকেটের বিষয়ে বিস্তারিত জানতে আরও তদন্ত করা হবে।

অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক জানান, অভিযান চালানোর সময় বেশ কয়েকজন বিদেশি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে জানা যায়, তারা চক্রটির কাছ থেকে জাল পাসপোর্ট কিনেছিলেন।

রুসলিন জউশ আরও জানান, চক্রটি পাসপোর্টের পুরোনো সংস্করণ ব্যবহার করতো। ফলে এগুলোতে পাতা পরিবর্তন করা সহজ। একটি পাসপোর্ট জালিয়াতি করতে এক থেকে দেড় হাজার রিঙ্গিত খরচ হতো বলে তিনি জানান।