ঢাকা ১২:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারত থেকে বাংলাদেশের ভিসা পাওয়ার উপায়

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে প্রতি বছর বিপুল সংখ্যক মানুষ বাংলাদেশে আসেন। এদের মধ্যে কেউ আছেন ব্যবসায়িক কাজে, কেউবা ভ্রমণে। পড়াশোনা কিংবা চিকিৎসার জন্য অনেকেই আসেন। এদেশের মতো ভারতের কলকাতায়ও রয়েছে বাংলা ভাষাভাষীর মানুষ। তাই দুই দেশের মধ্যে যাতায়াত চলে সারাবছরই।

ভারতীয় নাগরিকদের বাংলাদেশে আসার জন্য ভিসা সংগ্রহ করতে হয়। জানুন কীভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশের ভিসা পাওয়ার ‍উপায়।

কোথায় পাওয়া যাবে বাংলাদেশি ভিসা?

ভারতীয়দের বাংলাদেশের যাওয়ার জন্য ভিসা লাগে। কলকাতা বা ভারতে অবস্থিত বাংলাদেশের হাই কমিশনের কাছে এই জন্য আবেদন করতে হয়। তাদের কাছে আবেদন করতে হয় অনলাইনে। এছাড়াও অনেক এজেন্টের মাধ্যমেও এই ভিসার জন্য আবেদন করা যায়। যাদের মাধ্যমেই আবেদন করা হোক না কেন , প্রয়োজনীয় নথি জমা দেওয়ার সঙ্গে মানতে হয় কিছু নিয়ম।

কত দিনের জন্য ভিসা?

ভারতীয়দের জন্য বাংলাদেশ স্বল্পকালীন সময়ের জন্য ‘ট্যুরিস্ট ভিসা দেয়। এই জন্য লাগে ৩৫০০ রুপি। সাধারণত ৩০ দিনের জন্য ভিসা দেওয়া হয়। যেদিন এই অনুমতি দেওয়া হয়, তারপর থেকে ১৮০ দিনের ভিসার মেয়াদ থাকে। পাসপোর্টসহ অন্য প্রয়োজনীয় নথি দিয়ে আবেদন করার পরে সাধারণত ভিসা পেতে লাগে ১৫ দিন। তবে, কিছু অনুমোদিত এজেন্টের মাধ্যমে আবেদন করা হলে, ১১ দিনের মধ্যেই ভিসা পাওয়া যায়।

কীভাবে বাংলাদেশি ভিসার আবেদন করবেন?

বাংলাদেশ ভ্রমণে যাওয়ার জন্য ভিসা পেতে অনলাইনে আবেদন করুন। আবেদন করার সময়ে দিতে হবে পাসপোর্টের প্রথম এবং শেষ পাতার ফটোকপি। সেটা যেন একটি পাতাতেই আসে সেটা দেখতে হবে। যেদিন যাওয়া হবে, তারপরেও যেন অন্তত ৬ মাস সেই পাসপোর্টের মেয়াদ থাকে সেটাও দেখতে হবে।

ওই সঙ্গে দিতে হবে আবেদনকারী দুটি পাসপোর্ট-সাইজ ফটো, তার ই-মেইল অ্যাড্রেস, সেখানে থাকার সময় তার কাছে যে উপযুক্ত পরিমাণ অর্থ আছে তার প্রমাণস্বরূপ তিন মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট। এছাড়াও তার যাতায়াতের দিনের ফ্লাইটের টিকিট দেখাতে হবে। যেখানে তিনি থাকবেন, তার প্রমাণপত্রও সঙ্গে দিতে হবে। যদি কেউ সেখানে কোন আত্মীয় বা বন্ধুর বাড়িতে থাকেন তাহলে সেই ব্যক্তির বাসস্থানের প্রমাণপত্রও দিতে হবে।

কীভাবে মিলবে বাংলাদেশি ভিসা?

এজেন্টের মাধ্যমে আবেদন করা হলেও তা পাঠানো হয় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের অফিসে। আবেদন করার পরে বাংলাদেশের হাইকমিশন আবেদনকারীকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকে। সেই নির্দিষ্ট দিনে তাকে সেখানে, সমস্ত প্রমাণপত্র এবং কাগজ নিয়ে হাজির থাকতে হবে। তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেই এই নির্দিষ্ট তারিখ ঠিক করতে হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে ভিসার জন্য টাকা জমা দেওয়ার জন্য বলা হবে। তারপরেই মেইল করে আবেদনকারীকে ভিসা পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

ভারত থেকে বাংলাদেশের ভিসা পাওয়ার উপায়

আপডেট সময় : ১২:৪০:৫৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে প্রতি বছর বিপুল সংখ্যক মানুষ বাংলাদেশে আসেন। এদের মধ্যে কেউ আছেন ব্যবসায়িক কাজে, কেউবা ভ্রমণে। পড়াশোনা কিংবা চিকিৎসার জন্য অনেকেই আসেন। এদেশের মতো ভারতের কলকাতায়ও রয়েছে বাংলা ভাষাভাষীর মানুষ। তাই দুই দেশের মধ্যে যাতায়াত চলে সারাবছরই।

ভারতীয় নাগরিকদের বাংলাদেশে আসার জন্য ভিসা সংগ্রহ করতে হয়। জানুন কীভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশের ভিসা পাওয়ার ‍উপায়।

কোথায় পাওয়া যাবে বাংলাদেশি ভিসা?

ভারতীয়দের বাংলাদেশের যাওয়ার জন্য ভিসা লাগে। কলকাতা বা ভারতে অবস্থিত বাংলাদেশের হাই কমিশনের কাছে এই জন্য আবেদন করতে হয়। তাদের কাছে আবেদন করতে হয় অনলাইনে। এছাড়াও অনেক এজেন্টের মাধ্যমেও এই ভিসার জন্য আবেদন করা যায়। যাদের মাধ্যমেই আবেদন করা হোক না কেন , প্রয়োজনীয় নথি জমা দেওয়ার সঙ্গে মানতে হয় কিছু নিয়ম।

কত দিনের জন্য ভিসা?

ভারতীয়দের জন্য বাংলাদেশ স্বল্পকালীন সময়ের জন্য ‘ট্যুরিস্ট ভিসা দেয়। এই জন্য লাগে ৩৫০০ রুপি। সাধারণত ৩০ দিনের জন্য ভিসা দেওয়া হয়। যেদিন এই অনুমতি দেওয়া হয়, তারপর থেকে ১৮০ দিনের ভিসার মেয়াদ থাকে। পাসপোর্টসহ অন্য প্রয়োজনীয় নথি দিয়ে আবেদন করার পরে সাধারণত ভিসা পেতে লাগে ১৫ দিন। তবে, কিছু অনুমোদিত এজেন্টের মাধ্যমে আবেদন করা হলে, ১১ দিনের মধ্যেই ভিসা পাওয়া যায়।

কীভাবে বাংলাদেশি ভিসার আবেদন করবেন?

বাংলাদেশ ভ্রমণে যাওয়ার জন্য ভিসা পেতে অনলাইনে আবেদন করুন। আবেদন করার সময়ে দিতে হবে পাসপোর্টের প্রথম এবং শেষ পাতার ফটোকপি। সেটা যেন একটি পাতাতেই আসে সেটা দেখতে হবে। যেদিন যাওয়া হবে, তারপরেও যেন অন্তত ৬ মাস সেই পাসপোর্টের মেয়াদ থাকে সেটাও দেখতে হবে।

ওই সঙ্গে দিতে হবে আবেদনকারী দুটি পাসপোর্ট-সাইজ ফটো, তার ই-মেইল অ্যাড্রেস, সেখানে থাকার সময় তার কাছে যে উপযুক্ত পরিমাণ অর্থ আছে তার প্রমাণস্বরূপ তিন মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট। এছাড়াও তার যাতায়াতের দিনের ফ্লাইটের টিকিট দেখাতে হবে। যেখানে তিনি থাকবেন, তার প্রমাণপত্রও সঙ্গে দিতে হবে। যদি কেউ সেখানে কোন আত্মীয় বা বন্ধুর বাড়িতে থাকেন তাহলে সেই ব্যক্তির বাসস্থানের প্রমাণপত্রও দিতে হবে।

কীভাবে মিলবে বাংলাদেশি ভিসা?

এজেন্টের মাধ্যমে আবেদন করা হলেও তা পাঠানো হয় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের অফিসে। আবেদন করার পরে বাংলাদেশের হাইকমিশন আবেদনকারীকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকে। সেই নির্দিষ্ট দিনে তাকে সেখানে, সমস্ত প্রমাণপত্র এবং কাগজ নিয়ে হাজির থাকতে হবে। তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেই এই নির্দিষ্ট তারিখ ঠিক করতে হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে ভিসার জন্য টাকা জমা দেওয়ার জন্য বলা হবে। তারপরেই মেইল করে আবেদনকারীকে ভিসা পাঠিয়ে দেওয়া হয়।