ঢাকা ১১:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিলাসবহুল ঘড়ির ব্যবহার, পেরুর প্রেসিডেন্টের বাসভবনে তল্লাশি

বিলাসবহুল ঘড়ির ব্যবহারকে কেন্দ্র করে পেরুর প্রেসিডেন্ট দিনা বলুয়ার্তের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত চলছে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার (৩০ মার্চ) প্রেসিডেন্টের বাসভবনে তল্লাশি চালানো হয়েছে।

শনিবার সকালের দিকে চালানো তল্লাশি অভিযানে প্রায় ৪০ কর্মকর্তা অংশ নেন। মূলত রোলেক্স ঘড়ির সন্ধানেই এই অভিযান চলানো হয়।

স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলে পুলিশ ও প্রসিকিউটর অফিসের যৌথ অভিযানের খবর সম্প্রচার করা হয়। প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, তদন্তকারী দলের সরকারি এজেন্টরা প্রেসিডেন্টের বাসভবনে প্রবেশ করছেন।

রাজধানী লিমায় অবস্থিত বাসভবনটি ঘেরাও করার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তার ট্রাফিক বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ সময় প্রেসিডেন্টকে তার বাসভবনে দেখা যায়নি।

পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিচার বিভাগের অনুমোদন নিয়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো তল্লাশি ও জব্দ।

প্রেসিডেন্ট বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে নান ধরনের রোলেক্স ঘড়ি ব্যবহার করেছেন। স্থানীয় গণমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশের পর চলতি মাসে কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে।

 

সরকারি বেতনে এমন বিলাসবহুল ঘড়ি কীভাবে ব্যবহার করা সম্ভব এমন প্রশ্নের জবাবে প্রেসিডেন্ট জনিয়েছেন, এগুলো ১৮ বছর থেকে করা পরিশ্রমের ফসল। তাছাড়া ব্যক্তিগত বিষয়ে না গলাতেও নিষেধ করেন তিনি।

বিলাসবহুল ঘড়ির ব্যবহার, পেরুর প্রেসিডেন্টের বাসভবনে তল্লাশি

আপডেট সময় : ১০:১১:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

বিলাসবহুল ঘড়ির ব্যবহারকে কেন্দ্র করে পেরুর প্রেসিডেন্ট দিনা বলুয়ার্তের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত চলছে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার (৩০ মার্চ) প্রেসিডেন্টের বাসভবনে তল্লাশি চালানো হয়েছে।

শনিবার সকালের দিকে চালানো তল্লাশি অভিযানে প্রায় ৪০ কর্মকর্তা অংশ নেন। মূলত রোলেক্স ঘড়ির সন্ধানেই এই অভিযান চলানো হয়।

স্থানীয় একটি টেলিভিশন চ্যানেলে পুলিশ ও প্রসিকিউটর অফিসের যৌথ অভিযানের খবর সম্প্রচার করা হয়। প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, তদন্তকারী দলের সরকারি এজেন্টরা প্রেসিডেন্টের বাসভবনে প্রবেশ করছেন।

রাজধানী লিমায় অবস্থিত বাসভবনটি ঘেরাও করার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তার ট্রাফিক বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ সময় প্রেসিডেন্টকে তার বাসভবনে দেখা যায়নি।

পুলিশ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিচার বিভাগের অনুমোদন নিয়ে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো তল্লাশি ও জব্দ।

প্রেসিডেন্ট বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে নান ধরনের রোলেক্স ঘড়ি ব্যবহার করেছেন। স্থানীয় গণমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশের পর চলতি মাসে কর্তৃপক্ষ তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে।

 

সরকারি বেতনে এমন বিলাসবহুল ঘড়ি কীভাবে ব্যবহার করা সম্ভব এমন প্রশ্নের জবাবে প্রেসিডেন্ট জনিয়েছেন, এগুলো ১৮ বছর থেকে করা পরিশ্রমের ফসল। তাছাড়া ব্যক্তিগত বিষয়ে না গলাতেও নিষেধ করেন তিনি।