ঢাকা ০৯:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাঁচ শিক্ষকের চুরি যাওয়া ৯ লাখ টাকা উদ্ধার, একজন গ্রেফতার

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) ফরেস্ট্রি অ্যান্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের পাঁচ শিক্ষকের চুরি যাওয়া আট লাখ ৯৫ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে টিটন খান (৩৫) নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নগরীর হরিণটানা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম টাকা উদ্ধার ও গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রোববার (৩১ মার্চ) টাকাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। টাকাগুলো ওই পাঁচ শিক্ষকের একটি

 

ফরেস্ট্রি অ্যান্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক ড. এস এম ফিরোজ জানান, গত ১২ মার্চ তিনি ও আরেক শিক্ষক পাঁচটি চেকের মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংক খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা থেকে টাকা উত্তোলন করেন।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন-২ এর ২২৬০ নম্বর কক্ষে চেয়ারের ওপর রেখে ওজু করতে যান। এরপর ফিরে এসে দেখেন ওই কক্ষ থেকে একজন বেরিয়ে যাচ্ছেন। পরে কক্ষে প্রবেশ করে দেখেন ব্যাগের

চেন খোলা এবং টাকাগুলো নেই। এরপর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে হরিণটানা থানায় মামলা করেন।

অধ্যাপক ফিরোজ বলেন, টাকাগুলো ছিল আমাদের পাঁচ শিক্ষকের একটি প্রকল্পের। প্রকল্পের জন্য নগদ টাকা প্রয়োজন হওয়ায় পাঁচটি চেকের মাধ্যমে উত্তোলন করে নিয়ে আসি।

হরিণটানা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম জানান, মামলার পর আসামিকে ধরতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার সকালে দিঘলিয়া উপজেলার পানিগাতি এলাকা থেকে হারুন খানের ছেলে টিটন খানকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি টাকা চুরির বিষয়টি স্বীকার করেন। পরে তার হেফাজত থেকে আট লাখ ৯৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

 

পাঁচ শিক্ষকের চুরি যাওয়া ৯ লাখ টাকা উদ্ধার, একজন গ্রেফতার

আপডেট সময় : ১১:১৮:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) ফরেস্ট্রি অ্যান্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের পাঁচ শিক্ষকের চুরি যাওয়া আট লাখ ৯৫ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে টিটন খান (৩৫) নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নগরীর হরিণটানা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুল ইসলাম টাকা উদ্ধার ও গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রোববার (৩১ মার্চ) টাকাগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। টাকাগুলো ওই পাঁচ শিক্ষকের একটি

 

ফরেস্ট্রি অ্যান্ড উড টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক ড. এস এম ফিরোজ জানান, গত ১২ মার্চ তিনি ও আরেক শিক্ষক পাঁচটি চেকের মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংক খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা থেকে টাকা উত্তোলন করেন।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন-২ এর ২২৬০ নম্বর কক্ষে চেয়ারের ওপর রেখে ওজু করতে যান। এরপর ফিরে এসে দেখেন ওই কক্ষ থেকে একজন বেরিয়ে যাচ্ছেন। পরে কক্ষে প্রবেশ করে দেখেন ব্যাগের

চেন খোলা এবং টাকাগুলো নেই। এরপর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে হরিণটানা থানায় মামলা করেন।

অধ্যাপক ফিরোজ বলেন, টাকাগুলো ছিল আমাদের পাঁচ শিক্ষকের একটি প্রকল্পের। প্রকল্পের জন্য নগদ টাকা প্রয়োজন হওয়ায় পাঁচটি চেকের মাধ্যমে উত্তোলন করে নিয়ে আসি।

হরিণটানা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম জানান, মামলার পর আসামিকে ধরতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হয়। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার সকালে দিঘলিয়া উপজেলার পানিগাতি এলাকা থেকে হারুন খানের ছেলে টিটন খানকে গ্রেফতার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি টাকা চুরির বিষয়টি স্বীকার করেন। পরে তার হেফাজত থেকে আট লাখ ৯৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।