ঢাকা ০৭:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদের টানা ছুটিতেও চালু থাকবে চট্টগ্রাম বন্দর, কাস্টমসের কার্যক্রম

চট্টগ্রাম বন্দরের এক নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়, ছুটির সময়ে চট্টগ্রাম বন্দর, পানগাঁও আইসিটি (ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনাল) ও ঢাকা কমলাপুর আইসিডিসহ (ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপো) সব ধরনের কাজ চালু থাকবে।

ঈদুল ফিতরের ছুটিতেও চট্টগ্রাম বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম চালু থাকবে। আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমসহ সাপ্লাই চেইন চালু রাখতে বেসরকারি ডিপোসহ সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডার প্রতিষ্ঠানগুলো এ সময়ে খোলা রাখা হবে।

আগামী ১০ এপ্রিল থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত টানা পাঁচ দিন ঈদুল ফিতরের ছুটি। এ সময়ে বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম চালু রাখতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো নির্দেশনা জারি করেছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন বিভাগে নিয়োজিত করা হয়েছে জনবল।

চট্টগ্রাম বন্দরের এক নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়, ছুটির সময়ে চট্টগ্রাম বন্দর, পানগাঁও আইসিটি (ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনাল) ও ঢাকা কমলাপুর আইসিডিসহ (ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপো) সব ধরনের কাজ চালু থাকবে।

এই লক্ষ্যে বন্দরের অভ্যন্তরে থাকা জনতা ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংকসহ চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত অন্যান্য ব্যাংকের বুথে জনবল নিয়োজিত রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে সোনালী ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখা এবং সকল প্রাইভেট ডিপোসমূহকে কার্যক্রম চালু রাখার অনুরোধ জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

গত ৩ এপ্রিল চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে একটি আদেশ জারি করে।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেন, ‘এবারের ঈদেও বন্দরের কার্যক্রম চালু রাখতে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। সব স্টেকহোল্ডারদের এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন ডেলিভারি কার্যক্রম কিছু সময় বন্ধ থাকলেও বিকেল থেকেই পুনরায় চালু হবে। কেউ চাইলে ঈদের দিন বিকেলে পণ্য ডেলিভারি নিতে পারবেন। এছাড়া জাহাজে পণ্য ওঠানো-নামানোও চলবে।’

এদিকে চট্টগ্রাম কাস্টমসও কার্যক্রম চালু রাখার বিষয়েও নির্দেশনা জারি করেছে। ঈদের ছুটিতে ডেপুটি কমিশনার, রাজস্ব কর্মকর্তা, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা, শাখা সহকারীদের কাস্টমসের শুল্কায়ন কার্যক্রম চালু রাখার শিডিউল নির্ধারণ করেছে কাস্টমস।

চট্টগ্রাম ইপিজেডে রপ্তানি কার্যক্রম চালু রাখতেও কাস্টমসের সংশ্লিষ্ট ইউনিটকে নির্দেশনা দিয়েছেন চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ রুহুল আমিন।

তবে বন্দর সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো চালু থাকলেও যদি আমদানিকারকরা পণ্য ডেলিভারি না নেন, তাহলে প্রতিষ্ঠানগুলো চালু রাখলেও এর সুফল পাওয়া যাবে না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

ঈদের টানা ছুটিতেও চালু থাকবে চট্টগ্রাম বন্দর, কাস্টমসের কার্যক্রম

আপডেট সময় : ১১:৪৩:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রাম বন্দরের এক নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়, ছুটির সময়ে চট্টগ্রাম বন্দর, পানগাঁও আইসিটি (ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনাল) ও ঢাকা কমলাপুর আইসিডিসহ (ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপো) সব ধরনের কাজ চালু থাকবে।

ঈদুল ফিতরের ছুটিতেও চট্টগ্রাম বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম চালু থাকবে। আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রমসহ সাপ্লাই চেইন চালু রাখতে বেসরকারি ডিপোসহ সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডার প্রতিষ্ঠানগুলো এ সময়ে খোলা রাখা হবে।

আগামী ১০ এপ্রিল থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত টানা পাঁচ দিন ঈদুল ফিতরের ছুটি। এ সময়ে বন্দর ও কাস্টমসের কার্যক্রম চালু রাখতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো নির্দেশনা জারি করেছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর বিভিন্ন বিভাগে নিয়োজিত করা হয়েছে জনবল।

চট্টগ্রাম বন্দরের এক নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়, ছুটির সময়ে চট্টগ্রাম বন্দর, পানগাঁও আইসিটি (ইনল্যান্ড কন্টেইনার টার্মিনাল) ও ঢাকা কমলাপুর আইসিডিসহ (ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপো) সব ধরনের কাজ চালু থাকবে।

এই লক্ষ্যে বন্দরের অভ্যন্তরে থাকা জনতা ব্যাংক, ওয়ান ব্যাংকসহ চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত অন্যান্য ব্যাংকের বুথে জনবল নিয়োজিত রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসে সোনালী ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখা এবং সকল প্রাইভেট ডিপোসমূহকে কার্যক্রম চালু রাখার অনুরোধ জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

গত ৩ এপ্রিল চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে একটি আদেশ জারি করে।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মো. ওমর ফারুক বলেন, ‘এবারের ঈদেও বন্দরের কার্যক্রম চালু রাখতে আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। সব স্টেকহোল্ডারদের এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন ডেলিভারি কার্যক্রম কিছু সময় বন্ধ থাকলেও বিকেল থেকেই পুনরায় চালু হবে। কেউ চাইলে ঈদের দিন বিকেলে পণ্য ডেলিভারি নিতে পারবেন। এছাড়া জাহাজে পণ্য ওঠানো-নামানোও চলবে।’

এদিকে চট্টগ্রাম কাস্টমসও কার্যক্রম চালু রাখার বিষয়েও নির্দেশনা জারি করেছে। ঈদের ছুটিতে ডেপুটি কমিশনার, রাজস্ব কর্মকর্তা, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা, শাখা সহকারীদের কাস্টমসের শুল্কায়ন কার্যক্রম চালু রাখার শিডিউল নির্ধারণ করেছে কাস্টমস।

চট্টগ্রাম ইপিজেডে রপ্তানি কার্যক্রম চালু রাখতেও কাস্টমসের সংশ্লিষ্ট ইউনিটকে নির্দেশনা দিয়েছেন চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ রুহুল আমিন।

তবে বন্দর সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো চালু থাকলেও যদি আমদানিকারকরা পণ্য ডেলিভারি না নেন, তাহলে প্রতিষ্ঠানগুলো চালু রাখলেও এর সুফল পাওয়া যাবে না বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।