ঢাকা ০১:০৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম:

ডায়াবেটিস কমাতে খাওয়ার পর হাঁটা

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

খাওয়ার পর বিশেষত, কার্বোহাইড্রেইট-জাতীয় খাবার খাওয়ার পর সামান্য হাঁটাহাঁটি টাইপ টু ডায়বেটিস রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে অত্যন্ত উপকারী, বলছে এক নয়া গবেষণা।

 

গবেষণায় দেখা যায়, দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটাহাঁটির তুলনায় খাওয়ার পর হাঁটাহাঁটির কারণে গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের রক্তে শর্করার পরিমাণ কমেছে গড়ে প্রায় ১২ শতাংশ।

প্রধাণ গবেষক, নিউ জিল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অফ ওটাগো’র অ্যান্ড্রিউ রেনল্ডস বলেন, “খাওয়ার পরে হাঁটার মাধ্যমে রক্তে শর্করার পরিমাণ কমেছে সর্বোচ্চ ২২ শতাংশ পর্যন্ত, যা পাওয়া গেছে রাতের খাবার খাওয়ার পর। রাতের খাবারে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ থাকে সবচাইতে বেশি আর এরপর সময়টা কাটে সবচাইতে অলসভাবে।”

খাওয়ার পর শরীরের যোগ হওয়া শর্করা টাইপ টু ডায়াবেটিস পরিচালনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যে পরিণত হয়, যা সামগ্রিকভাবে রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ ও ‘কার্ডিওভাসকুলার’ রোগের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানান ইউনিভার্সিটি অফ ওটাগো’র অধ্যাপক জিম মান।

 

তিনি আরও বলেন, “খাওয়ার পর শারীরিক পরিশ্রম ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীদের ইনসুলিন গ্রহণের পরিমাণ কমাতে সহায়ক। রক্তে শর্করার পরিমাণ কমাতেই ডাক্তাররা ইনসুলিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ইনসুলিন গ্রহণের পরিমাণ বেশি হলে টাইপ টু ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীদের ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।”

গবেষণার জন্য ৪১ জন টাইপ টু ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীকে খাওয়ার পর মাস ভিত্তিতে টানা দুই সপ্তাহ হাঁটার পরামর্শ দেন গবেষকরা।

ডায়াবেটোলজিয়া নামক জার্নালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়।

ছবি: রয়টার্স।

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের একটি পৃষ্ঠা ‘ল্যান্ডস্কেপ’ করবেন যেভাবে

ডায়াবেটিস কমাতে খাওয়ার পর হাঁটা

আপডেট সময় : ০২:৩৬:১১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

খাওয়ার পর বিশেষত, কার্বোহাইড্রেইট-জাতীয় খাবার খাওয়ার পর সামান্য হাঁটাহাঁটি টাইপ টু ডায়বেটিস রোগীদের রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে অত্যন্ত উপকারী, বলছে এক নয়া গবেষণা।

 

গবেষণায় দেখা যায়, দিনের একটি নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটাহাঁটির তুলনায় খাওয়ার পর হাঁটাহাঁটির কারণে গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের রক্তে শর্করার পরিমাণ কমেছে গড়ে প্রায় ১২ শতাংশ।

প্রধাণ গবেষক, নিউ জিল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অফ ওটাগো’র অ্যান্ড্রিউ রেনল্ডস বলেন, “খাওয়ার পরে হাঁটার মাধ্যমে রক্তে শর্করার পরিমাণ কমেছে সর্বোচ্চ ২২ শতাংশ পর্যন্ত, যা পাওয়া গেছে রাতের খাবার খাওয়ার পর। রাতের খাবারে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণ থাকে সবচাইতে বেশি আর এরপর সময়টা কাটে সবচাইতে অলসভাবে।”

খাওয়ার পর শরীরের যোগ হওয়া শর্করা টাইপ টু ডায়াবেটিস পরিচালনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যে পরিণত হয়, যা সামগ্রিকভাবে রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ ও ‘কার্ডিওভাসকুলার’ রোগের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানান ইউনিভার্সিটি অফ ওটাগো’র অধ্যাপক জিম মান।

 

তিনি আরও বলেন, “খাওয়ার পর শারীরিক পরিশ্রম ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীদের ইনসুলিন গ্রহণের পরিমাণ কমাতে সহায়ক। রক্তে শর্করার পরিমাণ কমাতেই ডাক্তাররা ইনসুলিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ইনসুলিন গ্রহণের পরিমাণ বেশি হলে টাইপ টু ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীদের ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।”

গবেষণার জন্য ৪১ জন টাইপ টু ডায়বেটিসে আক্রান্ত রোগীকে খাওয়ার পর মাস ভিত্তিতে টানা দুই সপ্তাহ হাঁটার পরামর্শ দেন গবেষকরা।

ডায়াবেটোলজিয়া নামক জার্নালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়।

ছবি: রয়টার্স।