ঢাকা ০২:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম:

ধর্ষণে চিৎকার করায় শিশুকে হত্যা, পাশেই পড়ে ছিল স্কুলড্রেস-ব্যাগ!

মনিটর এর দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

স্কুলের জন্য বাসা থেকে বের হয়ে বাড়ি ফেরা হয়নি ৯ বছরের ঝুমুরের। কুমিল্লায় ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয় ধানক্ষেতে। অভিযুক্ত বখাটে মফিজুল ইসলাম মফুকে চাঁদপুরের শাহরাস্তি থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

৯ বছরের স্কুলছাত্রী তাজরিন সুলতানা ঝুমুরকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তোলপাড় কুমিল্লা। হত্যাকারীর বিচার দাবি জানান, শিশুটির পরিবারসহ সচেতন মহল। অভিযোগ পেয়েই অভিযানে নামে র‌্যাব।

 

বুধবার (১ মে) সকালে সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব জানায়, শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় জড়িত বখাটে মফিজুল ইসলাম মফুকে মঙ্গলবার রাতে চাঁদপুরের শাহরাস্তি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত মফিজুল ইসলাম মফু (৩৮) সদর দক্ষিণ থানার খিলপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

এ বিষয় র‍্যাব ১১ অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ পাশা সময় সংবাদকে জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অপরাধে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত। মফু একই এলাকার নিহত ঝুমুরের প্রতিবেশী। সম্পর্কে চাচা হয়। পূর্বপরিকল্পনা মতে, মফু আগে থেকে এলাকায় অবস্থান করছিল। স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ঝুমুরকে খিলপাড়া ধানক্ষেতে তুলে নিয়ে ধর্ষণের পর চিৎকার করলে শ্বাসরোধে হত্যা করে।


সোমবার কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সৌনালী শিশু বিদ্যানিকেতন কিন্ডারগার্টেনের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ঝুমুর স্কুল ছুটির পর বাসায় না ফেরায় খোঁজাখুঁজি করেন স্বজনরা। এক পর্যায়ে ধানক্ষেতে মেলে মরদেহ। পাশে পড়ে ছিল স্কুলড্রেস, জুতা ও ব্যাগ। এ ঘটনায় নিহতের মা বাদী হয়ে ওইদিনই কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় মামলা করেন।

সকল প্রকার কম্পিউটার পূন্যের দাম জানতে এখন-ই ক্লিক করুন

মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের একটি পৃষ্ঠা ‘ল্যান্ডস্কেপ’ করবেন যেভাবে

ধর্ষণে চিৎকার করায় শিশুকে হত্যা, পাশেই পড়ে ছিল স্কুলড্রেস-ব্যাগ!

আপডেট সময় : ০৮:৪২:৩২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মে ২০২৪

স্কুলের জন্য বাসা থেকে বের হয়ে বাড়ি ফেরা হয়নি ৯ বছরের ঝুমুরের। কুমিল্লায় ধর্ষণের পর হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয় ধানক্ষেতে। অভিযুক্ত বখাটে মফিজুল ইসলাম মফুকে চাঁদপুরের শাহরাস্তি থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

৯ বছরের স্কুলছাত্রী তাজরিন সুলতানা ঝুমুরকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তোলপাড় কুমিল্লা। হত্যাকারীর বিচার দাবি জানান, শিশুটির পরিবারসহ সচেতন মহল। অভিযোগ পেয়েই অভিযানে নামে র‌্যাব।

 

বুধবার (১ মে) সকালে সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাব জানায়, শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় জড়িত বখাটে মফিজুল ইসলাম মফুকে মঙ্গলবার রাতে চাঁদপুরের শাহরাস্তি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত মফিজুল ইসলাম মফু (৩৮) সদর দক্ষিণ থানার খিলপাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

এ বিষয় র‍্যাব ১১ অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ পাশা সময় সংবাদকে জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে অপরাধে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্ত। মফু একই এলাকার নিহত ঝুমুরের প্রতিবেশী। সম্পর্কে চাচা হয়। পূর্বপরিকল্পনা মতে, মফু আগে থেকে এলাকায় অবস্থান করছিল। স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ঝুমুরকে খিলপাড়া ধানক্ষেতে তুলে নিয়ে ধর্ষণের পর চিৎকার করলে শ্বাসরোধে হত্যা করে।


সোমবার কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার সৌনালী শিশু বিদ্যানিকেতন কিন্ডারগার্টেনের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী ঝুমুর স্কুল ছুটির পর বাসায় না ফেরায় খোঁজাখুঁজি করেন স্বজনরা। এক পর্যায়ে ধানক্ষেতে মেলে মরদেহ। পাশে পড়ে ছিল স্কুলড্রেস, জুতা ও ব্যাগ। এ ঘটনায় নিহতের মা বাদী হয়ে ওইদিনই কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় মামলা করেন।